বর্তমান বিশ্বের বিস্ময় দেশরত্ন শেখ হাসিনা—ইসরাফিল আলম এমপি

বর্তমান বিশ্বের বিস্ময় দেশরত্ন শেখ হাসিনা—ইসরাফিল আলম এমপি


তাহেরা এনায়েত করিম:
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন বাংলাদেশ জাতীয় পল্লী উন্নয়ন সমবায় ফেডারেশনের সভাপতি ইসরাফিল আলম এমপি। একই সঙ্গে বঙ্গবন্ধু কন্যার দীর্ঘায়ু ও সুস্বাস্থ্য কামনা করেছেন তিনি।
প্রজন্মের আলোর নির্বাহী সম্পাদক তাহেরা এনায়েত করিমের সাথে একান্ত আলোচনায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বর্তমান বিশ্বের বিস্ময় উল্লেখ করে ইসরাফিল আলম এমপি এই শুভেচ্ছা ও শুভ কামনা জানান।
ইসরাফিল আলম বলেন, শেখ হাসিনা বাংলাদেশের রাজনীতিতে যুগান্তকারী পরিবর্তন ঘটিয়েছেন। সাহস, প্রজ্ঞা, মমত্ববোধ, ধৈর্য, দূরদর্শিতা ও সব ধরনের প্রতিকূলতার সঙ্গে যুদ্ধ করে সাফল্য অর্জনের ক্ষেত্রে তিনি কেবল বাংলাদেশে নয় বিশ্বে অতুলনীয়। শেখ হাসিনা দেশী-বিদেশী চক্রান্ত এবং বার বার তাঁর প্রাণনাশের ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করে একত্রিশ বছরের অধিককাল ধরে দেশের ও দলের অপ্রতিদ্বন্দ্বী নেতা হিসেবে টিকে আছেন। বিশ্বের অনেক সফল ও সেরা রাজনীতিকও এত দীর্ঘ সময় একটা দেশের জনপ্রিয় নেতার আসনে থাকতে পারেননি।
তিনি বলেন, আজ বিশ্বের খ্যাতিমান শীর্ষনেতাদের নামের তালিকায় যুক্ত হয়েছে তাঁর নাম। তিনি এখন আর একজন রাজনৈতিক নেত্রী নন, তিনি একজন সফল রাষ্ট্রনায়ক। মানুষের মনে শেখ হাসিনা বেঁচে থাকবেন তাঁর অতুলনীয় সাহস ও সাফল্যের ভেতর দিয়ে। আগামী দিনের ইতিহাস লিখে রাখবে তাঁর সাফল্যগাথা।দেশরত্ন শেখ হাসিনা শুধু জাতীয় নেতাই নন, তিনি আজ তৃতীয় বিশ্বের একজন বিচক্ষণ বিশ্বনেতা হিসেবে অবতীর্ণ হয়েছেন। মানবিকতা, অসাম্প্রদায়িকতা, উদার, প্রগতিশীল, গণতান্ত্রিক ও বিজ্ঞানমনস্ক জীবনদৃষ্টি তাকে করে তুলেছে এক আধুনিক, অগ্রসর রাষ্ট্রনায়ক। একবিংশ শতাব্দীর অভিযাত্রায় দিন বদল ও ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ে তোলার কান্ডারী তিনি। সারা বিশ্বের নির্যাতিত, নিপীড়িত মানুষের ভরসাস্থল। বিশ্ব মানবতা যখন মুখ থুবড়ে পড়ছে, মানবতার ঝান্ডা হাতে দেশরত্ন শেখ হাসিনা তখন মাথা তুলে দাঁড়িয়েছেন। তার কণ্ঠে উচ্চারিত হয় নীপিড়ীত মানুষের কণ্ঠস্বর। দেশরত্ন শেখ হাসিনার ঘোর শত্রুরাও আজ তার মানবিকতার প্রশংসা করছেন।
ইসরাফিল আলম এমপি বলেন, রোহিঙ্গা ইস্যুতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রমাণ করেছেন তিনি বিপন্ন বিশ্বের মানবতার আশ্রয়স্থল আশার প্রদীপ। শেখ হাসিনা শুধু রাজনৈতিক নয়, তিনি সফল রাষ্ট্রনায়ক। বিশ্ব সব গণমাধ্যম দেশরত্ন শেখ হাসিনাকে বলেছে, ‘মাদার অব হিউম্যানিটি’। ২০১৬ সালে শান্তিতে নোবেল জয়ী কলম্বিয়ার প্রেসিডেন্ট জুয়ান ম্যানুয়েল সান্তোস বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনাকে ‘বিশ্ব মানবতার বিবেক’ হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন। আরেক নোবেল জয়ী কৈলাস সত্যার্থী দেশরত্ন শেখ হাসিনাকে ‘বিশ্ব মানবতার আলোকবর্তিকা’ হিসেবে তুলনা করেছেন। তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান, দেশরত্ন শেখ হাসিনাকে একজন ‘বিরল মানবতাবাদী নেতা’ হিসেবে চিহ্নিত করেছেন। ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রী সুষমা স্বরাজ এক বক্তৃতায় দেশরত্ন শেখ হাসিনার প্রশংসা করে বলেছেন, ‘বাবার মতোই বিশাল হৃদয় তাঁর। সেখানে ভালোবাসার অভাব নেই।’ পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী বলেছেন, ‘শেখ হাসিনা দেখিয়ে দিলেন বাঙালির হৃদয় কত বড়। তিনি বাঙালির গর্ব।’ গার্ডিয়ান পত্রিকায় রোহিঙ্গা ইস্যুতে এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ‘বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী যে বিশাল মহানুভবতার পরিচয় দিয়েছেন, তা বিরল। তিনি যে একজন হৃদয়বান রাষ্ট্রনায়ক- তা তিনি আগেও প্রমাণ করেছেন, এবারও প্রমাণ করলেন।’ ইন্ডিয়া টুডে তাদের দীর্ঘ এক প্রতিবেদনে বলেছে, ‘শেখ হাসিনার হৃদয় বঙ্গোপসাগরের চাইতেও বিশাল। যেখানে রোহিঙ্গাদের আশ্রয়ে কার্পণ্য নেই।’
ইসরাফিল আলম এমপি আরও বলেন, আমরা এখন মধ্যম আয়ের দেশে পৌঁছে গেছি শেখ হাসিনার নেতৃত্বে। তিনি আমাদের স্বপ্ন দেখাতে পারছেন যে কীভাবে উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত হতে হয়। জাতিসংঘ শেখ হাসিনার শান্তির মডেল গ্রহণ করেছে। বাংলাদেশ শেখ হাসিনার নেতৃত্বে অনেক আন্তর্জাতিক গুরুত্বপূর্ণ ও মর্যাদাসম্পন্ন পুরস্কার ও পদক অর্জন করেছে। জলবায়ু পরিবর্তনের ঝুঁকি মোকাবিলায় ‘চ্যাম্পিয়ন অব দ্য আর্থ’ পুরস্কার দিয়েছে জাতিসংঘ।এছাড়া টিকাদান কর্মসূচিতে বাংলাদেশের অসামান্য সাফল্যের স্বীকৃতি স্বরূপ “ভ্যাকসিন হিরো” পুরস্কারে ভূষিত হয়েছেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আমাদের মাথা উঁচু হযেছে সারা বিশ্বে।
তিনি বলেন, উন্নয়ন, মানুষের অধিকার আদায়, জঙ্গি ও সন্ত্রাস দমনে অদম্য শেখ হাসিনা যে কতটা মানবিক, এটা আমরা সবাই জানি। রাজধানীর নিমতলীতে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে সব হারা তিন কন্যা রুনা, রত্না, শান্তাকে নিজের বুকে টেনে নিয়ে নিজের মেয়ের স্বীকৃতি দেন মমতাময়ী মা শেখ হাসিনা। নীরবে নিভৃতে তিনি হাজার হাজার অসহায় ছেলেমেয়ের পড়াশোনার খরচ চালান। লাখ লাখ দরিদ্র, অসহায়ের চিকিৎসার ব্যয় বহন করেন। তিনি অসাধারণ।
একজন সফল, দক্ষ ও বিচক্ষণ রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনা। সফল মা, সফল অভিভাবক। সফল রাজনৈতিক নেতা, সংগঠক। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যেভাবে সাফল্যের সঙ্গে বাংলাদেশের উন্নয়ন কর্মকান্ড পরিচালনা করছেন, তা আগামী দিনেও অব্যাহত থাকবে।জয়তু শেখ হাসিনা। শুভ জন্মদিন।
উল্লেখ্য,২৮ সেপ্টেম্বর, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কন্যা ও আওয়ামী লীগের সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৩তম জন্মদিন। ১৯৪৭ সালের এই দিনে গোপালগঞ্জ জেলার টুঙ্গিপাড়ায় তিনি জন্মগ্রহণ করেন।