আবরার হত্যাকারীদের ফাঁসি ও আজীবন বহিষ্কারের দাবি

আবরার হত্যাকারীদের ফাঁসি ও আজীবন বহিষ্কারের দাবি

বুয়েটের ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যাকারীদের বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আজীবন বহিষ্কার, স্বল্পতম সময়ে খুনিদের শাস্তি নিশ্চিত করতে দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে এই মামলার বিচার, শেরে বাংলা হলের প্রভোস্টকে প্রত্যাহার ও পরিবারকে ক্ষতিপূরণ প্রদানসহ সাত দফা দাবিতে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে আল্টিমেটাম দিয়েছেন শিক্ষার্থীরা। বেলা ১১টার দিকে ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ মিছিলের পর এই দাবি ঘোষণা করেন বুয়েটের সাধারণ শিক্ষার্থীরা।

দাবি আদায়ে তারা বুয়েট ক্যাম্পাসে বিকেল ৫টা পর্যন্ত অবস্থান কর্মসূচি ঘোষণা করেছেন। এই সময়ের মধ্যে বুয়েটের ভিসি এসে দাবির শিক্ষার্থীদের সঙ্গে দাবির বিষয়ে আলোচনা না করলে আগামীকাল থেকে কঠোর কর্মসূচির ঘোষণাও দেন তারা।

আবরার হত্যার ঘটনার দুদিন পেরিয়ে গেলেও ভিসির ক্যাম্পাসে না আসা ও নীরবতার জন্য ক্ষোভ প্রকাশ করেন শিক্ষার্থীরা। কর্সূচি ঘোষণার আগে ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ মিছিল করেন তারা। এ সময় ছাত্র রাজনীতির নামে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড, র‌্যাগিংয়ের নামে নির্যাতন বন্ধের দাবি জানানো হয়। ‘খুনিদের ঠিকানা, এই বুয়েটে হবে না; আমার ভাই কবরে, খুনি কেন বাহিরে; প্রশাসন নীরব কেন, জবাব চাই দিতে হবে; ফাঁসি ফাঁসি ফাঁসি চাই, খুনিদের ফাঁসি চাই; আমরা ভাই মরল কেন, জবাব চাই দিতে হবে’ ইত্যাদি শ্লোগানও দেন তারা।

উল্লেখ্য, গত রবিবার রাতে বুয়েটের শেরে বাংলা হলে ছাত্রলীগের কিছু সন্ত্রাসীর হাতে নির্দয় পিটুনির শিকার হয়ে মারা যান বুয়েটের মেধাবী ছাত্র আবরার ফাহাদ। এই ঘটনায় গতকাল নিহতের বাবা বরকত উল্লাহ বাদী হয়ে ১৯ জনকে আসামি করে চকবাজার থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। গতকাল বুয়েট শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মেহেদি হাসান রাসেল, সহ-সভাপতি মুস্তাকিম ফুয়াদ, সহ-সম্পাদক আশিকুল ইসলাম বিটুসহ ৯ জনকে গ্রেফতারের কথা জানিয়েছে পুলিশ।