ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ভয়াবহ ট্রেন দুর্ঘটনা, ১২ জন নিহত

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ভয়াবহ ট্রেন দুর্ঘটনা, ১২ জন নিহত

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলার মন্দবাগ রেলওয়ে স্টেশন সংলগ্ন এলাকায় চট্টগ্রাম থেকে ঢাকাগামী তূর্ণা নিশীথা এক্সপ্রেসের সাথে সিলেট থেকে চট্টগ্রামগামী উদয়ন এক্সপ্রেসের মধ্যে মুখোমুখি সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এই ভয়াবহ দুর্ঘটনায় এখন পর্যন্ত ১২ জনের মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছেন অর্ধশতাধিক। নিহতের সংখ্যা আরো বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

বর্তমানে ঢাকার সঙ্গে চট্টগ্রাম ও সিলেটের রেল যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে।

সোমবার রাত পৌনে ৪টায় এই দুর্ঘটনা ঘটে বলে বাংলাদেশ জার্নালকে নিশ্চিত করেছেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের ডিউটি অফিসার বরকত উল্লাহ। তিনি বলেন, উদ্ধার অভিযানে আমাদের একটি টিম গেছে। তারা ফিরে আসার পরে আমরা জানমালের ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ জানাতে পারবো।

আখাউড়া রেলওয়ে থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শ্যামল কান্তি দাস দুর্ঘটনায় মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, এখন পর্যন্ত ১২ জনের মরদেহ পাওয়া গেছে। হতাহতদের উদ্ধার কাজ চলছে। দুমড়ে-মুচড়ে যাওয়া বগির নিচে আরো মরদেহ থাকতে পারে বলেও জানান তিনি।

এদিকে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, সিলেট থেকে চট্টগ্রামের দিকে যাওয়া উদয়ন এক্সপ্রেস মন্দবাগ লুপ লাইনে প্রবেশ করছিল। একই সময় চট্টগ্রাম থেকে ঢাকাগামী তুর্ণা নিশীথা এক্সপ্রেস পেছন থেকে উদয়নের শেষের ৩ কোচকে ধাক্কা দেয়।

দুর্ঘটনার পর সেখানে স্থানীয় লোকজন উদ্ধার কাজে ছুটে আসে। দুর্ঘটনায় উদয়নের অন্তত ২টি কোচ মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলেও জানান প্রত্যক্ষদর্শীরা।