চলতি অর্থ বছরেই ফের এমপিওভুক্তি, বরাদ্দ ৮৬৫ কোটি টাকা

চলতি অর্থ বছরেই ফের এমপিওভুক্তি, বরাদ্দ ৮৬৫ কোটি টাকা

দীর্ঘ প্রতীক্ষা শেষে ২৩ অক্টোবর দুই হাজার ৭৩০ প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত ঘোষণা করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তার একমাস না যেতেই এবার ফের বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত করা হবে বলে জানা গেছে।

চলতি অর্থ বছরেই আরেক দফা এমপিওভুক্ত করা হবে। এমপিওভুক্তির লক্ষ্যে অর্থ বিভাগ হতে ইতোমধ্যে ৮৬৫ কোটি টাকা বরাদ্দ পাওয়া গেছে।

এর আগে ‘বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের জনবল কাঠামো ও এমপিও নীতিমালা-২০১৮’ সংশোধন করা হবে। শিক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠকে এ তথ্য জানানো হয়েছে। কমিটির পক্ষ থেকে নীতিমালা সংশোধনের কাজ দ্রুত শেষ করার তাগিদ দেওয়া হয়েছে।

রোবাবর বিকেলে জাতীয় সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত ওই বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন কমিটির সভাপতি ডা. মো. আফছারুল আমীন। বৈঠকে কমিটির সদস্য শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী, মো. আব্দুল কুদ্দুস, ফজলে হোসেন বাদশা, মো. আবদুস সোবহান মিয়া ও মাহী বদরুদ্দোজা চৌধুরী এবং সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠকে জানানো হয়, ২০১৯-২০২০ অর্থ বছরে স্বীকৃতিপ্রাপ্ত নতুন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তির লক্ষ্যে অর্থ বিভাগ হতে ৮৬৫ কোটি টাকা বরাদ্দ পাওয়া গেছে। চলতি অর্থ বছরে এ পর্যন্ত এক হাজার ৬৫৮টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে এমপিওভুক্ত করা হয়েছে। এ বাবদ বার্ষিক ব্যয় প্রায় ৪৫৬ কোটি ৩২ লক্ষ ১৮ হাজার টাকা। উক্ত ব্যয়ের পর আরো প্রায় ৪০৮ কোটি ৬৭ লক্ষ ৮১ হাজার টাকা অবশিষ্ট থাকবে। এ অবশিষ্ট অর্থ দিয়ে সংশোধিত নীতিমালার আলোকে যাচাই-বাছাই করে চলতি অর্থ বছরে আরো কিছু শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে এমপিওভুক্ত করা সম্ভব হবে।

কমিটি সূত্র জানায়, বিষয়টি নিয়ে আলোচনা শেষে বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এমপিও নীতিমালা সংশোধনে স্থায়ী কমিটির সদস্যবৃন্দের মতামত ও সুপারিশ অন্তর্ভুক্তির সুপারিশ করা হয়। সংশোধিত নীতিমালার আলোকে সর্বোচ্চ সংখ্যক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত করার নির্দেশনা দেওয়া হয়।

এ ছাড়া বৈঠকে শিক্ষার গুনগত মান উন্নয়ন ও এসডিজি-৪ অর্জনের জন্য মন্ত্রণালয়ের গৃহীত পরিকল্পনা তুলে ধরা হয়।

এর আগে ২৩ আক্টোবর এমপিওভুক্তির মধ্যে নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয় (৬ষ্ঠ-৮ম) ৪৩৯, মাধ্যমিক বিদ্যালয় (৬ষ্ঠ-১০ম) ৯৯৪, উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয় একাদশ থেকে দ্বাদশ ৬৮, কলেজ একাদশ থেকে দ্বাদশ ৯৩, ডিগ্রি কলেজ (১৩শ-১৫শ) ৫৬, মাদরাসা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান দাখিল ৩৫৭, আলিম ১২৮, ফাজিল ৪২, কামিল ২৯, কারিগরি কৃষি ৬২, ভোকেশনাল ১৭৫ এবং এইচএসসি (বিএম) ২৮৩ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান রয়েছে।