অভিবাসন ও উন্নয়ন সম্পর্কিত বৈশ্বিক সম্মেলন-২০২০ ইকুয়েডরের রাজধানী কুইটোতে শুরু হচ্ছে।

অভিবাসন ও উন্নয়ন সম্পর্কিত বৈশ্বিক সম্মেলন-২০২০ ইকুয়েডরের রাজধানী কুইটোতে শুরু হচ্ছে।

মোঃ প্লাবন হোসেন

‘মানব চলাফেরার ক্ষেত্রে টেকসই পদ্ধতি: অধিকার রক্ষা, রাষ্ট্রীয় সংস্থা শক্তিশালীকরণ, এবং অংশীদারিত্ব ও সম্মিলিত পদক্ষেপের মাধ্যমে উন্নয়নের অগ্রযাত্রা’ শীর্ষক শীর্ষ সম্মেলনে অভিবাসন বিশেষজ্ঞ, নাগরিক সমাজ সংস্থা, সরকারী প্রতিনিধি এবং কূটনীতিকরা অংশ নেবেন, তাঁরা অভিবাসন সম্পর্কিত গ্লোবাল কম্প্যাক্ট বাস্তবায়নের জন্য আরও ভালো উপায় খুঁজে বের করার চেষ্টা করবেন।

নিরাপদ, সুশৃঙ্খল এবং নিয়মিত অভিবাসন নিশ্চিত করার লক্ষ্যে ২০১৩ সালে একাদশ জিএফএমডি শীর্ষ সম্মেলনের পরে মরক্কোর জাতিসংঘের সদস্য দেশগুলি দ্বারা মাইগ্রেশন সম্পর্কিত বৈশ্বিক চুক্তি গৃহীত হয়েছিল।

উদ্বোধনী অধিবেশনে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এম এ মোমেনের নেতৃত্বে একটি হাই প্রোফাইল বাংলাদেশ সরকারের প্রতিনিধি দল অংশ নেওয়ার কথা রয়েছে।

প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা নিউ এজ কে বলেছিলেন যে, বাংলাদেশ সরকার বিদেশের অভিবাসন বিভাগকে উন্নয়ন আকাঙ্ক্ষার একটি অবিচ্ছেদ্য উপাদান হিসাবে বিবেচনা করে।

ইডব্লিউওই এর মন্ত্রী ইমরান আহমদ নিউ এজ কে বলেছিলেন যে, বাংলাদেশ বিদেশের অভিবাসনকে উন্নয়নের চালিকা শক্তি হিসাবে বিবেচনা করে। এজন্য সরকার অভিবাসী শ্রমিকদের সুবিধার্থে দক্ষ শ্রমিকদের মাইগ্রেশন প্রচারে জোর দিয়েছিল।

বাংলাদেশ ১৯৭৬ সালে আনুষ্ঠানিকভাবে মধ্য প্রাচ্যের দেশগুলিতে শ্রমিক প্রেরণ শুরু করে। এরপর থেকে এটি বাংলাদেশের অর্থনীতির অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ স্তম্ভ হয়ে দাঁড়িয়েছে।

২০১৯ সালে রেমিট্যান্স প্রায় ১৮ শতাংশ বেড়ে রেকর্ড $১৮.৪২ বিলিয়ন ডলারে দাঁড়িয়েছে।

বাংলাদেশ বিশ্বের শীর্ষ পাঁচটি প্রবাসী প্রেরণকারী দেশগুলির মধ্যে একটি। তবে প্রাপ্ত রেমিটেন্সের ক্ষেত্রে, বাংলাদেশের অবস্থান শীর্ষ দশ প্রাপক দেশের মধ্যে রয়েছে।

বাংলাদেশ প্রতিনিধিদের মধ্যে মাইগ্রেশন অ্যান্ড ডেভলপমেন্ট (ককাস) এর চেয়ারম্যান সাংসদ ইসরাফিল আলম, ইডব্লিউওই মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব আহমেদ মুনিরুস সালেহীন, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মহাপরিচালক নজরুল ইসলাম, ব্রিটিশ কাউন্সিলের প্রোকাস প্রোগ্রামের দলনেতা গেরি ফক্স, ব্রিটিশ কাউন্সিলের সিনিয়র আইবিপি ম্যানেজার এবং সামাজিক অন্তর্ভুক্তির উপদেষ্টা শিরিন লিরা, ওয়ারবি ডেভলপমেন্ট ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান সৈয়দ সাইফুল হক, অভিবাসী কর্মী উন্নয়ন প্রোগ্রামের চেয়ারম্যান শাকিরুল ইসলাম, বাংলাদেশ নারী শ্রমিক কেন্দ্রের নির্বাহী পরিচালক সুমাইয়া ইসলাম, শরণার্থী ও অভিবাসী আন্দোলন গবেষণা ইউনিটের পরিচালক মেরিনা সুলতানা, আইআইডির প্রধান নির্বাহী সাইয়েদ আহমদ প্রমুখ জিএফএমডি শীর্ষ সম্মেলনে যোগ দিতে ইকুয়েডর পৌঁছেছেন।