• শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ০৫:১১ পূর্বাহ্ন
  • Bengali Bengali English English
সংবাদ শিরোনাম
কোটার উপর হাইকোর্টের রায়ের ওপর আপিল বিভাগের চার সপ্তাহের স্থিতাবস্থা ‘কোটা আন্দোলন পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে’ আইজিপি চৌধুরী আবদুল্লাহ আল মামুনের মেয়াদ বাড়ল কোপা আমেরিকার সেমিফাইনালে আর্জেন্টিনা মতিউর ও তার পরিবারের সম্পত্তি ক্রোকের আদেশ সচিবদের নিয়ে সভার ডাক মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের পেনশন স্কিম: শিক্ষকদের কর্মসূচি পর্যবেক্ষণ করে সিদ্ধান্ত এনবিআরের ফয়সালের শ্বশুর-শাশুড়ির নামে ১৮ ব্যাংক হিসাব এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের জন্য ডিএমপির ১৯ নির্দেশনা ‘এমপিওভুক্ত শিক্ষকদের অবসরভাতা ৬ মাসে দেয়া সম্ভব নয়’ মতিউর ও তার স্ত্রী-সন্তানদের ব্যাংক-বিও হিসাব স্থগিত তিস্তার পানি বণ্টন চুক্তিতে মমতার না, মোদিকে চিঠি ভয়ানক রাসেলস ভাইপার থেকে বাঁচতে বন বিভাগের যে নির্দেশনা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শনিবারের ছুটি বহাল, গ্রীষ্মের ছুটি কমলো বন্যায় সিলেট বিভাগের এইচএসসি পরীক্ষা ৮ জুলাই পর্যন্ত স্থগিত

অনিবন্ধিত মোবাইল হ্যান্ডসেট বন্ধের নির্দেশ

প্রজন্মের আলো / ১৪৪ শেয়ার
Update বুধবার, ১৭ জানুয়ারী, ২০২৪

অনলাইন ডেস্ক:

নিবন্ধনবিহীন সব মোবাইল ফোন বন্ধে পদক্ষেপ নিতে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনকে (বিটিআরসি) নির্দেশনা দিয়েছেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

তিনি বলেছেন, দেশে উৎপাদিত, সংযোজিত ও আমদানি করা মোবাইল হ্যান্ডসেটের ডাটাবেজ এবং স্বয়ংক্রিয় নিবন্ধনের ব্যবস্থা বিটিআরসিতে রয়েছে। তাই নিবন্ধনবিহীন সব মোবাইল ফোন বন্ধে পদক্ষেপ নিতে হবে। মঙ্গলবার রাজধানীর আগারগাঁওয়ে বিটিআরসি কার্যালয়ে কমিশন কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠকে তিনি এ নির্দেশনা দেন।

ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী বলেন, আগামী পাঁচ বছরে নির্দিষ্ট কিছু লক্ষ্য নিয়ে স্মার্ট বাংলাদেশের ভিত্তি তৈরিতে টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি খাতে রপ্তানি আয় ও বিনিয়োগ বৃদ্ধি, কর্মসংস্থান সৃষ্টি এবং রাজস্ব আয় বাড়ানোর উদ্যোগ নেওয়ার বিকল্প নেই। এ লক্ষ্য অর্জনে সংশ্লিষ্ট সবাইকে কাজ করতে হবে। জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, বর্তমান বৈশ্বিক অর্থনৈতিক সংকটকালে রপ্তানি, বিনিয়োগ ও কর্মসংস্থান বৃদ্ধি এবং আইন শৃঙ্খলা রক্ষায় একটা সাধারণ প্রযুক্তিভিত্তিক সমাধান দেশকে বিভিন্নভাবে লাভবান করতে পারে।

তিনি আরও বলেন, ‘পরিচয়’ ভেরিফিকেশন অথেনটিকেশন সার্ভিসের মাধ্যমে সেবা প্রদানের ক্ষেত্রে বৈপ্লবিক পরিবর্তন এসেছে। এ সেবাকে আরও সহজলভ্য করতে প্রতিটি ডাটাবেজ একটির সঙ্গে অন্যটির ইন্টার অপারেবল করা দরকার।

বৈঠকে বিটিআরসির চেয়ারম্যান প্রকৌশলী মো. মহিউদ্দিন আহমেদ, স্পেকট্রাম বিভাগের কমিশনার প্রকৌশলী শেখ রিয়াজ আহমেদ, ন্যাশনাল টেলিকমিউনিকেশন মনিটরিং সেন্টারের (এনটিএমসি) মহাপরিচালক মেজর জেনারেল জিয়াউল আহসান, বিটিআরসির প্রশাসন বিভাগের মহাপরিচালক আবদুল্লাহ আল মামুন ও ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড অপারেশন্স বিভাগের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. এহসানুল কবীর প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও সংবাদ

Categories