• সোমবার, ১৬ মে ২০২২, ১১:৪৭ অপরাহ্ন
  • Bengali Bengali English English
সংবাদ শিরোনাম
ভোক্তা পর্যায়ে পেঁয়াজের কেজি ৪৫ টাকা অস্বাভাবিক নয় বড় ধাক্কা : ৮০ পয়সা কমল টাকার মান ফখরুলকে বাড়াবাড়ি না করার আহ্বান জানালেন ওবায়দুল কাদের ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্তের ৭৫ শতাংশই ঢাকার বাংলাদেশের দারুণ শুরু ১১০ টাকায় সয়াবিন তেল বি‌ক্রির ঘোষণা দি‌য়ে স্থগিত কর‌ল টিসিবি কুসিক নির্বাচন: এক মাস আগেই মাঠে বিজিবি ভারত সরকারিভাবে গম রপ্তানি বন্ধ করেনি: খাদ্যমন্ত্রী চট্টগ্রাম টেস্ট প্রথম দিন শেষে এগিয়ে শ্রীলঙ্কা করোনায় টানা ২৫ দিন মৃত্যুশূন্য দেশ, শনাক্ত ৩৩ আসামির দায়ের কোপে পুলিশ সদস্যের কবজি বিচ্ছিন্ন ম্যাথুসের সেঞ্চুরিতে বড় সংগ্রহের পথে শ্রীলঙ্কা গাড়ি দুর্ঘটনায় প্রাণ হারালেন সাবেক অজি তারকা সাইমন্ডস নিউইয়র্কের সুপারমার্কেটে গোলাগুলি, নিহত ১০ রোববার ৪ বিভাগে ভারী বৃষ্টির সম্ভবনা

ক্রীড়ায় জাতীয় পুরস্কার পাচ্ছেন যারা

প্রজন্মের আলো / ৭ শেয়ার
Update : বুধবার, ১১ মে, ২০২২
প্রতীকী ছবি

অনলাইন ডেস্ক:

ক্রীড়া ক্ষেত্রে অবদানের জন্য বাংলাদেশের সর্বোচ্চ স্বীকৃতির নাম জাতীয় ক্রীড়া পুরস্কার। মর্যাদাপূর্ণ এই স্বীকৃতির স্বপ্ন দেখেন ক্রীড়া ক্ষেত্রের প্রতিটি মানুষ। জাতীয় পুরস্কার পেয়ে নিজেকে ভাগ্যবান মানছেন বাংলাদেশের হয়ে প্রথম টেস্টজয়ী অধিনায়ক হাবিবুল বাশ সুমন। তিনি বলেন, আমি মনে করি আমি খুব ভাগ্যবান যে এই সম্মাননাটা পাচ্ছি। নিজেকে খুব ভাগ্যবান মনে হচ্ছে, সে জায়গা থেকে অনেক সম্মানিত বোধ করছি। যে কোনো খেলোয়াড়ের জন্যই এটা সম্মানের।

ক্রীড়া ক্ষেত্রে অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে যে জাতীয় ক্রীড়া পুরস্কার দেয়া হয়, সেটি সর্বশেষ অনুষ্ঠিত হয়েছিল ২০১৬ সালে। ২০১২ সালের নির্বাচিতদের হাতে পুরস্কার উঠেছিল সেবার। এরপর আরেকটি জাতীয় পুরস্কার অনুষ্ঠান আয়োজন করতে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের সময় লেগেছে ছয় বছর। তবে বুধবার টানা ৮ বছরের পুরস্কার দেয়া হচ্ছে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বড় ছেলে শেখ কামাল একাধারে ছিলেন খেলোয়াড় ও সংগঠক। মেজ ছেলে শেখ জামালও ছিলেন ফুটবলার। পাশাপাশি ক্রীড়া সংগঠকের ভূমিকাও পালন করতেন। ক্রীড়াঙ্গনে অবদান স্বরূপ জাতীয় ক্রীড়া পুরস্কার পাচ্ছেন বীর মুক্তিযোদ্ধা শহীদ লেফটেন্যান্ট শেখ জামাল। শেখ জামালের মরণোত্তর এই পুরস্কার গ্রহণ করবেন জাতীয় সংসদ সদস্য শেখ জুয়েল।

রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে বুধবার ৮৫ জন ক্রীড়া ব্যক্তিত্বকে পুরস্কার দেয়া হবে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তবে তিনি উপস্থিত থাকবেন ভার্চুয়ালি। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মো. জাহিদ আহসান রাসেল। ২০১৩ থেকে ২০২০ সাল- এই আট বছরের জাতীয় পুরস্কারের জন্য ৩৪০ জন ক্রীড়াবিদ, ক্রীড়া সংগঠক, কোচ আবেদন করেছিলেন। বাছাইয়ের পর ৮৫ জনের নাম চূড়ান্ত করা হয়। পুরস্কারপ্রাপ্ত প্রত্যেককে দেয়া হবে স্বর্ণপদক, এক লাখ টাকার চেক এবং সম্মাননাপত্র।

২০২০ সালের জন্য নির্বাচিত : ৮ জন

(১) বীর মুক্তিযোদ্ধা শহীদ লেফটেন্যান্ট শেখ জামাল (মরণোত্তর), ক্যাটাগরি- খেলোয়াড় ও সংগঠক

(২) বীর মুক্তিযোদ্ধা আফজালুর রহমান সিনহা (মরণোত্তর), ক্যাটাগরি- সংগঠক (ক্রিকেট)

(৩) নাজমুল আবেদীন (ফাহিম), ক্যাটাগরি- সংগঠক (ক্রিকেট কোচ)

(৪) মো. মহসীন, ক্যাটাগরি- খেলোয়াড় (ফুটবল)

(৫) মো. মাহাবুবুল এহছান রানা, ক্যাটাগরি- খেলোয়াড় (হকি)

(৬) গ্র্যান্ডমাস্টার মোল্লা আব্দুল্লাহ আল রাকিব, ক্যাটাগরি- খেলোয়াড় (দাবা)

(৭) বেগম মোছা. নিলুফা ইয়াসমিন, ক্যাটাগরি- খেলোয়াড় (অ্যাথলেটিকস)

(৮) আব্দুল কাদের স্বরণ, ক্যাটাগরি- খেলোয়াড় (ব্যাডমিন্টন – বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী)

২০১৯ সালের জন্য নির্বাচিত : ১১ জন

(৯) তানভীর মাজহার তান্না, ক্যাটাগরি- সংগঠক (ফুটবল)

(১০) মৃত অরুন চন্দ্র চাকমা, ক্যাটাগরি- সংগঠক (অ্যাথলেটিকস) (মরণোত্তর)

(১১) লেফটেন্যান্ট জেনারেল (অব.) মো. মইনুল ইসলাম, ক্যাটাগরি- সংগঠক (আরচারি)

(১২) দিপু রায় চৌধুরী, ক্যাটাগরি- খেলোয়াড় (ক্রিকেট)

(১৩) কাজী নাবিল আহমেদ, ক্যাটাগরি- সংগঠক (ফুটবল)

(১৪) ইন্তেখাবুল হামিদ, ক্যাটাগরি- সংগঠক (শ্যুটিং)

(১৫) বেগম মাহফুজা রহমান তানিয়া, ক্যাটাগরি- খেলোয়াড় (সাঁতার)

(১৬) বেগম ফারহানা সুলতানা (শীলা), ক্যাটাগরি- খেলোয়াড় (সাইক্লিং)

(১৭) টুটুল কুমার নাগ, ক্যাটাগরি- খেলোয়াড় (হকি)

(১৮) মাহবুবুর রব, ক্যাটাগরি- খেলোয়াড় (ব্যাডমিন্টন)

(১৯) বেগম সাদিয়া আক্তার উর্মি, ক্যাটাগরি- খেলোয়াড় (টেবিল টেনিস- বুদ্ধি প্রতিবন্ধী)

২০১৮ সালের জন্য নির্বাচিত : ১০ জন

(২০) ফরিদা আক্তার বেগম, ক্যাটাগরি- সংগঠক (অ্যাথলেটিকস)

(২১) জ্যোৎস্না আফরোজ, ক্যাটাগরি- খেলোয়াড় (অ্যাথলেটিকস)

(২২) মো. রফিক উল্যা আখতার (মিলন), ক্যাটাগরি- সংগঠক (অ্যাথলেটিকস)

(২৩) কাজী আনোয়ার হোসেন, ক্যাটাগরি- খেলোয়াড় (ফুটবল)

(২৪) মো. শওকত আলী খান (জাহাঙ্গীর), ক্যাটাগরি- সংগঠক (ফুটবল)

(২৫) মীর রবিউজ্জামান, ক্যাটাগরি- খেলোয়াড় (জিমন্যাস্টিকস)

(২৬) মোহাম্মদ আলমগীর আলম, ক্যাটাগরি- খেলোয়াড় (হকি)

(২৭) তৈয়েব হাসান সামছুজ্জামান, ক্যাটাগরি- সংগঠক (রেফারি)

(২৮) নিবেদিতা দাস, ক্যাটাগরি- খেলোয়াড় (সাঁতার)

(২৯) মাহমুদুল ইসলাম রানা, ক্যাটাগরি- সংগঠক (তায়কোয়ানডো)

২০১৭ সালের জন্য নির্বাচিত : ১১ জন

(৩০) শাহরিয়া সুলতানা, ক্যাটাগরি – খেলোয়াড় (ভারোত্তোলন)

(৩১) আওলাদ হোসেন, ক্যাটাগরি – সংগঠক (জুডো, কারাতে ও মার্শাল আর্ট)

(৩২) ওয়াসিফ আলী, ক্যাটাগরি – খেলোয়াড় (বাস্কেটবল)

(৩৩) শেখ বশির আহমেদ (মামুন), ক্যাটাগরি – সংগঠক (জিমন্যাস্টিকস)

(৩৪) মো. সেলিম মিয়া, ক্যাটাগরি – খেলোয়াড় (সাঁতার)

(৩৫) হাজী মো. খোরশেদ আলম, ক্যাটাগরি – সংগঠক (রোইং)

(৩৬) আবু ইউসুফ, ক্যাটাগরি – খেলোয়াড় (ফুটবল)

(৩৭) এ টি এম শামসুল আলম, ক্যাটাগরি – সংগঠক (টেবিল টেনিস)

(৩৮) রহিমা খানম যুথী, ক্যাটাগরি – খেলোয়াড় (অ্যাথলেটিকস)

(৩৯) আসাদুজ্জামান কোহিনুর, ক্যাটাগরি – সংগঠক (হ্যান্ডবল)

(৪০) মো. মাহবুব হারুন, ক্যাটাগরি – খেলোয়াড় (হকি)

২০১৬ সালের জন্য নির্বাচিত : ১৩ জন

(৪১) মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান, ক্যাটাগরি- খেলোয়াড় (সাঁতার)

(৪২) লে. কমান্ডার এ কে সরকার (অব.), ক্যাটাগরি- সংগঠক (বাস্কেটবল)

(৪৩) বেগম সুলতানা পারভীন লাভলী, ক্যাটাগরি- খেলোয়াড় (অ্যাথলেটিকস)

(৪৪) বীর মুক্তিযোদ্ধা শামীম-আল-মামুন, ক্যাটাগরি- সংগঠক (ভলিবল)

(৪৫) আরিফ খান জয়, ক্যাটাগরি- খেলোয়াড় (ফুটবল)

(৪৬) খন্দকার রকিবুল ইসলাম, ক্যাটাগরি- খেলোয়াড় (ফুটবল)

(৪৭) মোহাম্মদ জালাল ইউনুস, ক্যাটাগরি- সংগঠক (ক্রিকেট)

(৪৮) মো. তোফাজ্জল হোসেন, ক্যাটাগরি- সংগঠক (অ্যাথলেটিকস)

(৪৯) কাজল দত্ত, ক্যাটাগরি- খেলোয়াড় (ভরোত্তোলন)

(৫০) মো. তাবিউর রহমান পালোয়ান, ক্যাটাগরি- সংগঠক (কুস্তি)

(৫১) জেড আলম, ক্যাটাগরি- সংগঠক (ফুটবল) (মরণোত্তর)

 (৫২) কাজী হাবিবুল বাশার, ক্যাটাগরি- খেলোয়াড় (ক্রিকেট)

(৫৩) আবদুর রাজ্জাক (সোনা মিয়া), ক্যাটাগরি- খেলোয়াড় (হকি) (মরণোত্তর)

২০১৫ সালের জন্য নির্বাচিত : ১১ জন

(৫৪) অধ্যাপক ড. শেখ আবদুস সালাম, ক্যাটাগরি- সংগঠক (ক্যারম)

(৫৫) মো. আহমেদুর রহমান, ক্যাটাগরি- খেলোয়াড় ও সংগঠক (জিমন্যাস্টিকস)

(৫৬) আহমেদ সাজ্জাদুল আলম, ক্যাটাগরি- সংগঠক (ক্রিকেট)

(৫৭) খাজা রহমতউল্লাহ, ক্যাটাগরি- খেলোয়াড় (হকি) (মরণোত্তর)

(৫৮) মাহ্তাবুর রহমান বুলবুল, ক্যাটাগরি- খেলোয়াড় ও সংগঠক (বাস্কেটবল)

(৫৯) বেগম ফারহাদ জেসমীন লিটি, ক্যাটাগরি- খেলোয়াড় (অ্যাথলেটিকস)

(৬০) বরুন বিকাশ দেওয়ান, ক্যাটাগরি- খেলোয়াড় (ফুটবল)

(৬১) রেহানা জামান, ক্যাটাগরি- খেলোয়াড় (সাঁতার)

(৬২) মো. জুয়েল রানা, ক্যাটাগরি- খেলোয়াড় (ফুটবল)

(৬৩) বেগম জেসমিন আক্তার, ক্যাটাগরি- খেলোয়াড় (ভারোত্তোলন, কারাতে ও তায়কোয়ানডো)

(৬৪) বেগম শিউলী আক্তার সাথী, ক্যাটাগরি- খেলোয়াড় (ব্যাডমিন্টন)

২০১৪ সালের জন্য নির্বাচিত : ১০ জন

(৬৫) শামসুল বারী, ক্যাটাগরি- খেলোয়াড় ও সংগঠক (হকি) (মরণোত্তর)

(৬৬) এনায়েত হোসেন সিরাজ, ক্যাটাগরি- সংগঠক (ক্রিকেট)

(৬৭) মো. ফজলুর রহমান বাবুল, ক্যাটাগরি- সংগঠক (ফুটবল)

(৬৮) সৈয়দ শাহেদ রেজা, ক্যাটাগরি- সংগঠক (হ্যান্ডবল)

(৬৯) মো. ইমতিয়াজ সুলতান জনি, ক্যাটাগরি- খেলোয়াড় (ফুটবল)

(৭০) মোহাম্মদ এহসান নামিম, ক্যাটাগরি- খেলোয়াড় (হকি)

(৭১) বেগম কামরুন নেছা, ক্যাটাগরি- খেলোয়াড় (অ্যাথলেটিকস)

(৭২) মো. সামছুল ইসলাম, ক্যাটাগরি- খেলোয়াড় (সাঁতার)

(৭৩) মিউরেল গোমেজ, ক্যাটাগরি- খেলোয়াড় (অ্যাথলেটিকস)

(৭৪) মো. জোবায়েদুর রহমান রানা, ক্যাটাগরি- খেলোয়াড় (ব্যাডমিন্টন)

২০১৩ সালের জন্য নির্বাচিত : ১১ জন

(৭৫) মুজাফ্ফর হোসেন পল্টু, ক্যাটাগরি- খেলোয়াড় ও সংগঠক (ক্রিকেট)

(৭৬) কাজী মাহতাব উদ্দিন আহমেদ, ক্যাটাগরি- সংগঠক (হ্যান্ডবল)

(৭৭) উইং কমান্ডার (অব.) মহিউদ্দিন আহমেদ, ক্যাটাগরি- সংগঠক (ভারোত্তোলন)

(৭৮) সামশুল হক চৌধুরী, ক্যাটাগরি- সংগঠক (ফুটবল)

(৭৯) বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. শাহ্জাহান মিজি, ক্যাটাগরি- খেলোয়াড় (সাঁতার)

(৮০) রোকেয়া বেগম খুকী, ক্যাটাগরি- খেলোয়াড় (অ্যাথলেটিকস)

(৮১) বেগম মুনিরা মোর্শেদ খান (হেলেন), ক্যাটাগরি- খেলোয়াড় (টেবিল টেনিস)

(৮২) মো. ইলিয়াস হোসেন, ক্যাটাগরি- খেলোয়াড় (ফুটবল)

(৮৩) বেগম জ্যোৎস্না আক্তার, ক্যাটাগরি- খেলোয়াড় (অ্যাথলেটিকস)

(৮৪) ভোলা লাল চৌহান, ক্যাটাগরি- খেলোয়াড় (স্কোয়াশ)


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরও সংবাদ

বিশ্বে করোনা ভাইরাস

বাংলাদেশে

আক্রান্ত
১,৯৫৩,০৪৯
সুস্থ
১,৮৯৯,৬৩৯
মৃত্যু
২৯,১২৭
সূত্র: আইইডিসিআর

বিশ্বে

আক্রান্ত
৫১৯,৮৭২,১২৬
সুস্থ
মৃত্যু
৬,২৫৮,৯৫১

Categories